0000

নাওডাঙ্গা জমিদার বাড়ি একটি ঐতিহ্যবাহী প্রাচীন স্থাপনা


কুড়িগ্রাম জেলার নাওডাঙ্গা জমিদার বাড়ি একটি ঐতিহ্যবাহী প্রাচীন স্থাপনা। কুড়িগ্রাম জেলার ফুলবাড়ী উপজেলা থেকে প্রায় ৮ কিলোমিটার দূরে নাওডাঙ্গা জমিদার বাড়ির অবস্থান। বাড়িতে জমিদার নেই কিংবা নেই জমিদারি প্রথার লেশচিহ্ন। কিন্তু কালের সাক্ষী হয়ে আজও দাঁড়িয়ে আছে স্থাপনাটি। জমিদার বাড়িটি বাংলাদেশ সরকারের অধীনে থাকলেও অবহেলা-অযত্নে পড়ে আছে জমিদারী প্রথার সময়ে নির্মিত কালের ঐতিহাসিক স্থাপনাটি। অবিভক্ত ভারতবর্ষ প্রতিষ্ঠারও আগে নাওডাঙ্গা পরগনার তৎকালীন জমিদার বাহাদুর প্রমদারঞ্জন বক্সী স্থাপনাটি নির্মাণ করেন। যা ফুলবাড়ি তথা কুড়িগ্রাম জেলা ট্যুরিজমের আকর্ষণীয় দিক হতে পারতো।
নাওডাঙ্গা জমিদার বাড়ি মন্দির

প্রমদারঞ্জন বক্সী জমিদারের উত্তরসুরী বীরেশ্বর প্রসাদ বক্সী নাওডাঙ্গা জমিদার বাড়িতে একটি মাইনর স্কুল এবং প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেন। যা বর্তমানে নাওডাঙ্গা প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং নাওডাঙ্গা স্কুল অ্যান্ড কলেজ নামে পরিচিত। বীরেশ্বর প্রসাদ বক্সী শ্রীকৃষ্ণের পুণ্য জন্মতিথিতে প্রতি দোলপূর্ণিমায় নাওডাঙ্গা জমিদার বাড়ির সামনের মাঠে দোল মেলার আয়োজন শুরু করেন। যা এখনও চালু রয়েছে।

নাওডাঙ্গা জমিদার বাড়ি শিব মন্দির 

বর্তমানে নাওডাঙ্গা জমিদার বাড়িতে একটি ঐতিহ্যবাহী প্রাচীন শিব মন্দির, একটি কালী মন্দির, জমিদারের বসবাসের ঘর এবং একটি প্রাচীন কূয়া রয়েছে। যার মধ্যে শিবমন্দির ও কালী মন্দিরটি মেরামতের কাজ করা হচ্ছে। কূয়াটি স্থানীয়রা ময়লা আবর্জনা ফেলে বন্ধ করে ফেলেছে। আর বসবাসের জন্য নির্মিত স্থাপনাগুলো ধ্বংশ প্রায়।

যেভাবে যাবেন-

রাজধানীর শ্যামলী বা কল্যাণপুর থেকে কয়েকটি পরিবহনের বাস সরাসরি কুড়িগ্রামের উদ্দেশে ছেড়ে যায়। কুড়িগ্রাম থেকে ফুলবাড়ি উপজেলা সদরে এসে সেখান থেকে ৮ কিলোমিটার দূরে জমিদার বাড়িটি দেখতে পাবেন।

জাহানুর রহমান খোকন

ট্রাভেলার

আমিই বাংলাদেশ গ্রুপ

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য

Back To Top